প্রচ্ছদ / রুপচর্চা / বিস্তারিত

For Advertisement

600 X 120

রূপচর্চায় গোলাপ জল

৪ এপ্রিল ২০১৮, ৩:৪৭:১২

ঢাকা, ০৪ এপ্রিলকারেন্ট নিউজ বিডিরূপচর্চায় যুগ যুগ ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে গোলপ জল।। এটি তৈরি হয় গোলাপ ফুলের পাপড়ি পানিতে ভিজিয়ে রেখে তৈরি করা হয় গোলাপ জল। ত্বকের জন্য দারুণ উপকারী এই পানি। আর সে জন্যই সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে ব্যবহার করা হয় গোলাপ জল। সব ধরনের ত্বকের সমস্যা সমাধানে, ত্বককে সিক্ত (হাইড্রেট), নরম এবং মসৃণ রাখতে সাহায্য করে গোলাপ জল।

গোলাপ জলের ব্যবহার ও উপকার

মেকআপ তোলার জন্য আদর্শ হল গোলাপ জল। দু চামচ গোলাপ জলের সঙ্গে এক চামচ আমন্ডের তেল মিশিয়ে ত্বকে লাগান। মেকআপ তোলার সঙ্গে সঙ্গে ত্বককে ময়েশ্চারাইজও করবে এই মিশ্রণ।

অনেকেরই চোখের নিচের অংশ ফোলা থাকার সমস্যা দেখা দেয়। সেই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে তুলোয় অল্প করে গোলাপ জল নিন। আর গোটা মুখে ভালো করে লাগিয়ে দিন। মিনিটের মধ্যে দেখবেন চোখ মুখের ফোলাভাব দূর হয়েছে।

গোলাপ জল শুধু ত্বক পরিষ্কারই করে না, ত্বকের পিএইচ লেভেল বজায় রাখতেও সাহায্য করে। তার জন্য তুলায় গোলাপ জল নিয়ে দিনে দুবার লাগান। প্রতিদিন গোলাপ জল ব্যবহার করলে ব্রণ, ব্ল্যাকহেডস, হোয়াইটহেডস নিমেষেই দূর হয়।

ত্বকের অ্যালার্জি বা যেকোনো সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে গোলাপ জলের সঙ্গে পরিমাণ মতো তুলসী পাতার গুঁড়ো মিশিয়ে ব্যবহার করুন। ৬ চামচ গোলাপ জলের সঙ্গে ২ চামচ নারকেল তেল এবং ২ চামচ গ্লিসারিন মিশিয়ে প্রতিদিন ২ বার করে ব্যবহার করুন।

গোলাপ জল ব্রণের সমস্যা দূর করতে ভালো কাজ করে। সমপরিমাণ লেবুর রস ও গোলাপ জল মিশিয়ে নিন। ত্বকে লাগিয়ে এক ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। তারপর পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। দুতিন সপ্তাহ নিয়মিত এই পদ্ধতি অনুসরণ করা হলে ত্বকের দাগ ও কালচেভাব অনেকটাই দূর হবে।

আরোমা থেরাপির জন্যও গোলাপ জল ব্যবহার করা যায়। ত্বক বিশেষজ্ঞরা বলেন, আরোমা থেরাপি ত্বকের সৌন্দর্যে এক নতুন মাত্রা যোগ করে।

ঘরেই  তৈরি গোলাপ জল
খুর সহজে বাড়িতেই তৈরি করে নিতে পারেন গোলাপ জল। এতে সময় এবং ঝামেলা দুটোই কম। তাই নিজের ত্বক এবং সৌন্দর্যের ব্যপারে থাকতে পারবেন নিশ্চিন্তে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক বাড়িতে গোলাপ জল তৈরির প্রাচীন পদ্ধতিটি।

পদ্ধতি-১ :
৫-১০টি তাজা গোলাপ থেকে শুধুমাত্র পাপড়িগুলো খুলে নিয়ে নিন। গোলাপের পাপড়িগুলো ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। খেয়াল রাখুন পাপড়ি যেন ভেঙে না যায়। একটি পাত্রে পাপড়িগুলো রেখে সেখানে ফোটানো বিশুদ্ধ পানি ঢালুন। খুব বেশি পানি দেবেন না। কেবল মাত্র পাপড়ির ওপর পর্যন্ত পানি দেবেন। এরপর পাত্রটিকে মাঝারী আঁচে ঢাকনা দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। গোলাপের পাপড়ি রঙ হারালে এবং পানির উপরে হালকা তেল ভেসে উঠলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। গোলাপ জল ঠাণ্ডা করে একটি বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিলে দীর্ঘ দিন ভালো থাকে।

পদ্ধতি-২ :
৫-১০টি তাজা গোলাপ থেকে শুধুমাত্র পাপড়িগুলো খুলে নিয়ে নিন। গোলাপের পাপড়িগুলো ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। খেয়াল রাখুন পাপড়ি যেন ভেঙে না যায়)একটি পাত্রের মাঝখানে একটি বাটি উপুর করে বা পরিষ্কার পাথর রাখুন। এবার পাপড়িগুলো রেখে সেখানে ফোটানো বিশুদ্ধ পানি ঢালুন। খুব বেশি পানি দেবেন না। কেবল মাত্র পাপড়ির ওপর পর্যন্ত পানি দেবেন। এবার উপুর করা পাত্রের উপর সোজাভাবে একটি কাঁচের পাত্র বা ফানেল রাখুন। এরপর পাত্রটি ঢাকানা উলটে ঢেকে দিয়ে মাঝারী আঁচে চুলায় বসিয়ে দিন। ঢাকনার উপর কিছু বরফ দিয়ে দিন। এবার খেয়াল রাখুন ভেতরের পাত্রে বা ফানেলে শুধু বাস্প পানি হয়ে জমা হচ্ছে। পরিমাণ মতো হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন। গোলাপের পানি জমা পাত্র বা ফানেলটি বে করে ঠাণ্ডা হলে স্প্রে বোতলে বা নরমাল কাঁচের বোতলে ভরে রেখে ফ্রিজে দিন।

খুর সহজে বাড়িতেই তৈরি করে নিতে পারেন গোলাপ জল। এতে সময় এবং ঝামেলা দুটোই কম। তাই নিজের ত্বক এবং সৌন্দর্যের ব্যপারে থাকতে পারবেন নিশ্চিন্তে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক বাড়িতে গোলাপ জল তৈরির প্রাচীন পদ্ধতিটি।

পদ্ধতি-১ :
৫-১০টি তাজা গোলাপ থেকে শুধুমাত্র পাপড়িগুলো খুলে নিয়ে নিন। গোলাপের পাপড়িগুলো ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। খেয়াল রাখুন পাপড়ি যেন ভেঙে না যায়। একটি পাত্রে পাপড়িগুলো রেখে সেখানে ফোটানো বিশুদ্ধ পানি ঢালুন। খুব বেশি পানি দেবেন না। কেবল মাত্র পাপড়ির ওপর পর্যন্ত পানি দেবেন। এরপর পাত্রটিকে মাঝারী আঁচে ঢাকনা দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। গোলাপের পাপড়ি রঙ হারালে এবং পানির উপরে হালকা তেল ভেসে উঠলে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন। গোলাপ জল ঠাণ্ডা করে একটি বোতলে ভরে ফ্রিজে রেখে দিলে দীর্ঘ দিন ভালো থাকে।

পদ্ধতি-২ :
৫-১০টি তাজা গোলাপ থেকে শুধুমাত্র পাপড়িগুলো খুলে নিয়ে নিন। গোলাপের পাপড়িগুলো ভালো করে ধুয়ে পরিষ্কার করে নিন। খেয়াল রাখুন পাপড়ি যেন ভেঙে না যায়)একটি পাত্রের মাঝখানে একটি বাটি উপুর করে বা পরিষ্কার পাথর রাখুন। এবার পাপড়িগুলো রেখে সেখানে ফোটানো বিশুদ্ধ পানি ঢালুন। খুব বেশি পানি দেবেন না। কেবল মাত্র পাপড়ির ওপর পর্যন্ত পানি দেবেন। এবার উপুর করা পাত্রের উপর সোজাভাবে একটি কাঁচের পাত্র বা ফানেল রাখুন। এরপর পাত্রটি ঢাকানা উলটে ঢেকে দিয়ে মাঝারী আঁচে চুলায় বসিয়ে দিন। ঢাকনার উপর কিছু বরফ দিয়ে দিন। এবার খেয়াল রাখুন ভেতরের পাত্রে বা ফানেলে শুধু বাস্প পানি হয়ে জমা হচ্ছে। পরিমাণ মতো হয়ে গেলে চুলা বন্ধ করে দিন। গোলাপের পানি জমা পাত্র বা ফানেলটি বে করে ঠাণ্ডা হলে স্প্রে বোতলে বা নরমাল কাঁচের বোতলে ভরে রেখে ফ্রিজে দিন।

For Advertisement

600 X 120

কারেন্ট নিউজ বিডি'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। 

পাঠকের মতামত: